কাজ, শক্তি ও ক্ষমতা- Work, Power & Energy


মাধ্যমিকে জেনে আসা কিছু বিষয় আর একবার পুনরাবৃত্তি করতে চাই । তোমরা জেনে এসেছো-
v  কোন বস্তুর উপর বল প্রয়োগে যদি বস্তুটির সরণ হয় তবে বল প্রয়োগকারী কতৃক কৃত কাজ হবে ।
v  m ভরের বস্তুকে ভূপৃষ্ঠ হতে h উচ্চতায় উঠানো হলে কৃত কাজ বা তার ভিতর সঞ্চিত বিভবশক্তি হবে । 
v  বস্তুত শক্তি এবং কাজ একই জাতীয় রাশিবস্তু শক্তি প্রয়োগ করে মানে কাজ করে । তাই কাজ এবং শক্তি রাশি দুইটিকে আলাদা ভাবে চিন্তা করার প্রয়োজন নেইউদাহরণ সরূপ একটি বস্তুকে নির্দিষ্ট পরিমাণ গতিশক্তিতে নিয়ে আসতে গেলে তার উপর যে কাজ করতে হয় তাই এর অভ্যন্তরে গতিশক্তি আকারে জমা হয় ।
v  একটি যন্ত্রে যে পরিমাণ ক্ষমতা দেয়া থাকে বা তার উপর যত ক্ষমতা লেখা থাকে, যন্ত্রটি বাস্তবিক ভাবে ততটা ক্ষমতা সম্পন্ন হয়না । কিছুটা কম হয় । কারণ এক্ষেত্রে ঘর্ষণ সহ অনন্য কারণে কিছু অপচয় অবশ্যই আছে । তাই এর কর্মদক্ষতা হিসাব করতে হয় । 
এ অধ্যায়ের আলোচনায় নতুনত্যের পরিমাণ খুবই সামান্য । এখানে মূলত উপরে উল্লেখিত বিষয়বস্তু গুলো নিয়েই ব্যাবহারিক জীবনের সমন্নয় ঘটানো হয়েছে । তাই আমরা পরবর্তী আলোচনা টপিক ভিত্তিক ভাবে কিছু প্রয়োগ নিয়েই করব ।
ভেক্টর অধ্যায়ে আমরা জেনেছি কেন বল ও সরণ উভয়ই ভেক্টর রাশি হওয়া সত্ত্বেও কাজ একটি স্কেলার রাশি । কাজ স্কেলার রাশি কারণ- কাজ হল বল এবং সরণের ডট গুণের ফলাফল । আর দুইটি ভেক্টরের ডট গুণের ফলাফল একটি স্কেলার রাশি হয় ।

Post a Comment

0 Comments