ডায়োডের কাজের পরিচিতি

আমাদের বাস্তব জীবনে চলার পথে অনেক ধরণের রাস্তা বা দরজাই তো অতিক্রম করতে হয় । এদের মধ্যে অনেক দরজা বা পথ আছে, যেগুলো একমুখী । অর্থাৎ এগুলোতে শুধু প্রবেশাধিকার আছে কিন্তু বের হওয়ার অধিকার নেই অথবা শুধু বের হওয়ার অধিকার আছে কিন্তু প্রবেশাধিকার নেই । যেমন আমরা যদি কোন পার্কে যাই, সেখানে ঢোকার জন্য একটি পথ এবং বের হওয়ার জন্য আর একটি পথ রয়েছে । আপনি একটা টিকেট কেটে প্রবেশের পথ দিয়ে প্রবেশ করতে পারেন । আবার বাহির পথ আছে শুধু বাহির হওয়ার জন্য । তবে এসব কাজ করার জন্য এই গেটে বা রাস্তায় একজন প্রহরী প্রয়োজন । তবে হ্যাঁ, আপনি প্রবেশ পথ দিয়ে বাহির এবং বাহির পথ দিয়ে প্রবেশ করতে পারেন । তবে তার জন্য গেটের সিকিউরিটি ভাঙতে হবে । তার জন্য আপনাকে অধিক শক্তিশালী হতে হবে ।

ইলেকট্রনিক্সেও এমন কিছু পথের প্রয়োজন হয় । বর্তনিগুলোতে এমন কিছু স্থান রাখা প্রয়োজন হয়, যেখানে তড়িতের শুধু একমুখী গমনের অধিকার রাখা প্রয়োজন হয় । যেমনঃ কোন একটি মোটর ঘুড়িয়ে বিদ্যুৎ তৈরি করে তা একটি ব্যাটারিতে জমা করতে, মোটর থেকে বিদ্যুৎ ব্যাটারিতে প্রবাহের অনুমতি থাকে কিন্তু ব্যাটারি থেকে বিদ্যুৎ মোটরে যাওয়ার অনুমতি থাকেনা ।

ইলেকট্রনিক্সে এই কাজগুলো করার জন্যও বর্তনিতে একটি প্রহরী বসানো হয় । তা হল- ডায়োড । ডায়োড এমন একটি ইলেকট্রনিক্স আবিষ্কার, যা তড়িৎ প্রবাহকে শুধু একমুখী প্রবাহের অনুমতি দেয় । আর এ কাজটি সে করে ফরওয়ার্ড এবং রিভার্স বায়াসিং এর মাধ্যমে । আবার বলেছিলাম, গেট দিয়ে প্রবেশাধিকার পাবার জন্য একটি টিকেট কাটার প্রয়োজন হয় । তেমনি ডায়োডের প্রবেশাধিকার থাকলেও সেই পথ দিয়ে যেতে হলে গমনকারী কারেন্টের ভোল্টেজকে একটি নির্দিষ্ট সীমার বেশি হতে হয় । যা সিলিকন ডায়োডের জন্য ০.৭ ভোল্টেজ এবং জার্মেনিয়াম ডায়োডের জন্য ০.৩ ভোল্টেজ । গমনকারী কারেন্টের ভোল্টেজ এর কম হলে প্রবেশাধিকার থাকা সত্ত্বেও কারেন্ট ডায়োডের মধ্যদিয়ে প্রবেশ করতে পারবেনা । আর এই ভোল্টেজকে আমরা বলে থাকি নি ভোল্টেজ । গেটের মত ডায়োডের অনুমতি না থাকা সত্ত্বেও কারেন্ট কোন ডায়োডকে অতিক্রম করতে পারে । কিন্তু তার জন্য ডায়োডকে ভেঙ্গে প্রবেশ করতে হবে । আর ভাঙ্গার জন্য গমনকারী কারেন্টের ভোল্টেজকে অনেক বেশি হতে হবে । যাকে আমরা জেনার ভোল্টেজ বলি ।

ট্রানজিস্টর নির্দিধায় ইলেকট্রনিক্সে বিপ্লবের অন্যতম কারণ । কিন্তু এই ট্রানজিস্টর আবিষ্কারের ধারণা আসে ডায়োড থেকে । হয়তো ডায়োড আবিষ্কার না হলে আমরা কখনই ইলেকট্রনিক্সে এতোটা পথ কখনই এগিয়ে আসতে পারতাম না ।

Jeion Ahmed

BSc in EEE CUET

Post a Comment

0 Comments