বিগ ব্যাঙ্গের আগে-পরে এবং স্রষ্টার হস্তক্ষেপ

আমাদের এই মহাবিশ্ব সৃষ্টি হয়েছিল, বিগ ব্যাং তথা মহা বিস্ফোরনের মাধ্যমে । অর্থাৎ একটা সময় আমাদের এই মহাবিশ্ব একটা পরম বিন্দুতে পুঞ্জিভূত ছিল । এক সময় সেটার বিস্ফোরণ ঘটে এবং বস্তুগুলো অধিক বেগে ছুটতে থাকে । যা থেকে অসংখ্য গ্রহ এবং নক্ষত্রের এই প্রসারণশীল মহাবিশ্ব আমরা পেয়েছি । কিন্তু বিগ ব্যাঙ্গের কথা বললেই, আমাদের মনে প্রশ্ন আসে, সেই পরম বিন্দু কোথা থেকে এলো ? এর বিস্ফোরণই বা কিভাবে ঘটল ? অনেকে আবার এখানে স্রষ্টার হস্তক্ষেপের অস্তিত্ব দেয়ার চেষ্টা করে । কিন্তু পদার্থবিজ্ঞানে এই বিগ ব্যাং এবং বিগ ব্যাঙ্গের পূর্ববর্তী পরম বিন্দুর অস্তিত্বের উত্তর রয়েছে ।

কোয়ান্টাম ফ্লাকচুয়েশন থেকে আমরা এই কণার অস্তিত্বের প্রমাণ পাই । এখন আবার মনে প্রশ্ন জাগতে পারে, পরম কণার অস্তিত্ব যদি পেয়েও যাই, তবে এর বিস্ফোরণ ঘটল কিভাবে ? বিস্ফোরণ আপনা আপনিই ঘটেছে । যার উত্তর আছে ইনফ্লেশন থিওরীতে ।

সর্বশেষ একটা প্রশ্ন মাথায় আসতে পারে, পরম বিন্দু সৃষ্টির আগে কি ছিল । এখানে কি স্রষ্টার হস্তক্ষেপে ভিন্ন কিছু বজায় থাকে ? পদার্থবিজ্ঞান বলছে, পরম বিন্দু বা বিগ ব্যাঙ্গের আগেও এমন কোন জগত ছিল, যেখানে আমাদের কোন কারণ এবং ধারাবাহিকতা বজায় ছিলনা । অর্থাৎ এইটা করলে ওইটা ঘটবে এরকম কোন যুক্তি কার্যকর ছিলনা । তাই এখানে আমাদের পদার্থবিজ্ঞানের তত্ত্বগুলো ভিন্নভাবে চিন্তা করলে এর ব্যাখ্যা পাওয়া যেতে পারে । 

আসলে এখানে স্রষ্টার অস্তিত্ব এবং হস্কেক্ষেপকে বাস্তবিক রুপ দেয়ার চেষ্টা করলে আমাদের ভুল হবে । মনে রাখতে হবে, আমরা স্রষ্টার হস্তক্ষেপ খুজছি, তার অস্তিত্বকে প্রমাণ করতে চাচ্ছিনা ।

জিওন আহমেদ

Post a Comment

0 Comments