কেন আমরা অতিত মনে করতে পারি, কিন্তু ভবিষ্যত পারিনা ?

মাঝে মাঝে এই প্রশ্নটা অনেকে এভাবেও করে থাকে, কেন সময় শুধু সামনের দিকেই যায় ? পিছনের দিকে কেন যায়না ? আসলে পদার্থবিদ্যার সূত্রগুলোতে অতিত কিংবা ভবিষ্যতের মধ্যে তেমন কোন পার্থক্যসূচক বৈশিষ্ট্য নেই । যেটাকে স্টিফেন হকিং CPT নামক কয়েকটি কার্যক্রমের অধীনস্থ করে দিয়েছিলেন । যার জন্য পদার্থবিদ্যার সূত্রগুলো সবসময় অপরিবর্তিত থাকে । যাদের মধ্যে-

  • C হল- প্রতিকণার কারণে কণাতে পরিবর্তন ।
  • P হল- দর্পণে প্রতিফলিত প্রতিবিম্ব নেওয়া ।
  • T হল- সব কণার গতির দিক উল্টো দিকে আনা, যাতে কণাগুলোর গতির পথ পিছন দিকে হয় ।

প্রথম দুইটিকে একসাথে এভাবে বলা যায়- এমন এক অন্য গ্রহের বাসিন্দা, যারা আমাদের প্রতিকণা দিয়ে তৈরি এবং আমাদের দর্পণ প্রতিবম্ব । আর তাদের জীবন আমাদের মতই । যাদের সাথে হ্যান্ডসেক করলে মুহুর্তের মধ্যে কণা-প্রতিকণার মিলিত হওয়ার কারণে ভয়ংকর এক আলোর ঝলকানিতে আমরা শুন্যে মিলে যাব ।

T কে আমরা এভাবে বলতে পারি- আপনি যদি টেবিলের উপর থেকে একটা কাচের গ্লাস মেঝেতে পড়ে গিয়ে ভেঙ্গে যাওয়ার ঘটনাটি ভিডিও করেন এবং সেটাকে পিছন দিক থেকে চালনা করেন, আপনি কি দেখবেন ? নিশ্চয়ই মেঝেতে পড়ে থাকা অনেকগুলো কাচের টুকরোকে একসাথে মিলিত হয়ে একটা গ্লাসে রুপে নিয়ে সেটাকে টেবিলের উপর লাফিয়ে উঠতে দেখবেন । কোন ঘটনা পিছন দিকে ঘটার বিষয়টি এমনই ।

আর পদার্থবিদ্যার সূত্রগুলো যদি C এবং P এর ক্ষেত্রে অভিন্ন হয় এবং C, P এবং T এর ক্ষেত্রেও অভিন্ন হয়, তবে এরা পৃথকভাবে T এর অধিনেও অভিন্ন হবে । কিন্তু এই T এর ক্ষেত্রে সময় এবং তাপগতিবিদ্যার গভীর সম্পর্ক আছে ।

কিন্তু এক্ষেত্রে আমরা বাস্তব জীবনে কোন ঘটনাকে সময়ের পিছন দিক থেকে ঘটতে দেখিনা । আর সেটা সম্ভবও নয় । সেটাকে অবৈধ করে তুলেছেন- তাপগতিবিদ্যার দ্বিতীয় সূত্র । তাপগতিবিদ্যার দ্বিতীয় সূত্র বলে, প্রকৃতির এনট্রপি বা বিশৃঙ্খলা কখনও কমা সম্ভব নয় । এটা বাড়তে পারে । যেহেতু গ্লাসের টুকরোগুলো একত্রিত হয়ে গ্লাস গঠন করলে তাতে প্রকৃতির বিশৃঙ্খলা বা কমে যায়, তাই এটি সম্ভব নয় ।

ময়ের সাথে এনট্রপি বাড়ার এই ঘটনাকে আমরা বলে থাকি সময়ের তির । এরকম আরও দুইটি সময়ের তির আছে । যারা আলাদা আলাদা কাজ করে থাকে ।

সময়ের তিরঃ প্রকৃতির এনট্রপি বা বিশৃঙ্খলা বাড়ায় ।

মনস্তাত্ত্বিক সময়ের তিরঃ এটি আমাদের মনে সময় বয়ে যাওয়ার অনুভুতি জন্মায় । অর্থাৎ এর জন্যই আমরা অতিতকে মনে করতে পারি, ভবিষ্যতকে পারিনা ।

মহাজাগতিক সময়ের তিরঃ এর জন্যই মহাবিশ্ব সংকুচিত হওয়ার পরিবর্তে প্রসারিত হচ্ছে ।

জিওন আহমেদ

Post a Comment

0 Comments